কেন বাদ পরলেন সাঈদ খোকন?

আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থীরা মনোনয়ন ফরম

জমাদান শেষ করেছেন। ফরম জমা দিয়েছিলেন বর্তমান ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন । তার আসনে আরেক নতুন মুখ ফজলে নূর তাপস। তবে বর্তমান শক্তিশালী মেয়রের সাথে কতটুকু এগিয়ে থাকবেন তিনি কেই বা জানত। ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর বিষয়টি সবাইকেই ভাবিয়েছে। এবারের ঢাকা দক্ষিণে দেখা যেতে পারে নতুন মেয়রের দেখা।

গত ২৯ ডিসেম্বর প্রকাশিত হয় ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনীত মেয়র প্রার্থীর নাম প্রকাশিত হয়। যেখানে মনোনীত হয় ঢাকা উত্তরে আতিকুল ইসলাম ও দক্ষিনে শেখ ফজলে নূর তাপস। আওয়ামীলীগ এর সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এ ঘোষণা দেন।

এ দিকে বাদ পরেছেন গতবার নির্বাচনে জয়ী হওয়া দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন। ওবায়দুল কাদের জানান, জনপ্রিয়তার ওপর বিবেচনা করে মনোনীত করা হয়েছে। তফসিল ঘোষণার সময় উপস্থিত ছিলেন না সাঈদ খোকন। মূলত এবারে ডেঙ্গু সমস্যার সমাধান ভালো ভাবে করতে না পারায় সাঈদ খোকন কে মনোনীত করা হয়নি বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। 

মনোনয়ন পাওয়া দুই প্রার্থীই আধুনিক নগর তৈরীতে তৎপর থাকবেন বলে জানায়। জনগনের ভোগান্তি কমাতে কাজ করে যাবার প্রতিশ্রুতি দুই প্রার্থীর। আগামি কিছু দিনের মধ্যে তারা মাঠে নামবে জনসাধারনের কাছে।

এ দিকে ফলাফল শুনে কান্নায় ভেঙ্গে পরেন সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন। এরুপ  ফলাফলের জন্য একদমই প্রস্তুত নন তিনি। জনগনের জন্য নিজেকে সব সময় ই প্রস্তুত রেখেছেন এ কথা জানিয়েছেন। তাও ফলাফল মেনে নিয়ে সামনের এগিয়ে যাবার আসা ব্যক্ত করেন।

অন্যদিকে উত্তরের বর্তমান মেয়র আতিকুল ইসলাম নিজের জায়গা ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন। তার সাথে আরও প্রতিদন্দী থাকলেও সবাইকে পিছনে ফেলে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী তিনিই হয়েছেন। এবার নিজেকে প্রমান করবেন এবং জনগণকে দেয়া প্রতিশ্রুতি খুব দ্রুত কার্যকর করবেন।

 

Add Comment